Friday, November 7, 2014

জানার আছে অনেক কিছু--আপনি কি এই তথ্য গুলো জানেন?


আসসালামুয়ালাইকুম। আশা করি আপনারা সবাই ভালো আছেন। আমাদের সবসময় নতুন নতুন বিষয় সম্পর্কে জানতে কৌতূহল থাকে। জানার যেমন কোন শেষ নেই তেমনি জানতে চাওয়ারও শেষ হয় না। আমরা সবসময় জানতে আগ্রহী। তাই আপনাদের জন্য কিছু অজানা বিষয় (অনেকের ক্ষেত্রে অবশ্যই জানা হতে পারে) নিয়ে এই পোস্ট সাঝালাম। আশা করি পোস্টটি আপনাদের ভালো লাগবে।
বি.দ্র.- পোস্টটি একটু বড় তাই এর PDF মিডিয়াফায়ারে আপলোড করা হয়েছে।
 
·        একজন মানুষের রক্তের পরিমাণ তার মোট ওজনের ১৩ ভাগের এক ভাগ। অর্থাৎ ১৩০ কেজি ওজনের মানুষের রক্তের পরিমাণ হল ১০ কেজি।


·        দেহে অক্সিজেন সরবারহকারী লোহিত রক্ত কণিকার পরিমাণ ২৫০০ কোটি এবং এরা ৪ মাস বাঁচে।

·        রোগ প্রতিরোধকারী শ্বেত রক্ত কণিকার সংখ্যা ২৫০ কোটি এবং এরা মাত্র ১২ ঘণ্টা বাঁচে।

·        দেহের সব শিরাকে পাশাপাশি সাজালে দেড় একর জমির প্রয়োজন হবে।

·        একজন মানুষের স্নায়ুতন্ত্র এত লম্বা যে তা দিয়ে পৃথিবীকে ৭ বার পেঁচানো যাবে।

·        কোন অনুভূতি স্নায়ুতন্ত্রের মধ্য দিয়ে ঘণ্টায় ২০০ মাইল বেগে প্রবাহিত হয়।

·        দেহে ও মনে অনুভূতি আসলে টা মস্তিষ্কে পৌঁছাতে ০.১ সেকেন্ড সময় লাগে।

·        একজন শিশুর জন্মের সময় হাড় থাকে ৩৫০ টি।

·        শিশুরা কথা বলতে শিখলেই নানান প্রশ্ন করে। একটি ৪ বছরের শিশু প্রতিদিন গড়ে ৪৩৭টি প্রশ্ন করে।

·        একজন মানুষ সারা জীবনে ৪০ হাজার লিটার মূত্র ত্যাগ করে।

·        একজন মানুষের শরীরের চামড়ার পরিমাণ হচ্ছে ২০ বর্গফুট এবং এই চামড়ার উপর রয়েছে ১ কোটি লোমকূপ।

·        মানুষের শরীরে যে পরিমাণ চর্বি আছে তা দিয়ে ৭টি বড় জাতের কেক তৈরি সম্ভব।

·        মানুষের শরীরে ৬৫০টি পেশী আছে। কোন কোন কাজে ২০০টি পেশী সক্রিয় হয়। মুখমণ্ডলে ৩০টির বেশি আছে। হাসতে গেলে ১৫টির বেশি পেশী সক্রিয় হয়।

·        একস্থান থেকে শুরু করে সমগ্র শরীর ঘুরে আবার ঐ স্থানে ফিরে আসতে একটি রক্ত কণিকার ১০০০০০ কি.মি. পথ অতিক্রম করতে হয় অর্থাৎ ২.৫ বার পৃথিবী অতিক্রম করতে পারবে।

·        আমাদের মস্তিষ্ক প্রায় ১০,০০০ টি ভিন্ন গন্ধ চিনতে ও মনে রাখতে পারে।

·        ১০০ বছর আগেও বোরনিওতে মানুষের মাথার খুলি মুদ্রা হিসেবে ব্যবহার করা হত।

·        প্রাচীনকালে শুধু চিনেই রেশম চাষ হতো। তা হতো কড়া পাহারায়। কেউ এই গোপনীয়তা ফাঁস করার চেষ্টা করলে তার শাস্তি হতো মৃত্যুদণ্ড।

·        বিড়াল ১০০ রকম শব্দ করতে পারে। আর কুকুর পারে মাত্র ১০ রকম।

·        বাচ্চা বিড়াল চোখ বন্ধ অবস্থায় জন্মায়। ৭ থেকে ১৪ দিন এভাবে চোখ বন্ধ অবস্থাতেই থাকে।

·        পৃথিবীতে প্রাণীদের মধ্যে ৮০ ভাগই হচ্ছে পোকামাকড়।

·        প্রাচীনকালে গ্রীক ও রোমানরা শুকনো তরমুজকে মাথার হেলমেট হিসেবে ব্যবহার করতো।

·        চোখ খুলে হাঁচি দেওয়া সম্ভব না। আয়নার সামনে গিয়ে চেষ্টা করে দেখতে পারেন।

·        বিগত চার হাজার বছর মানুষ নতুন কোন প্রাণীকে পোষ মানাতে পারেনি।

·        প্রত্যেক মানুষের হাতের ছাপের মত জিহ্বার ছাপ পুরোপুরি আলাদা।

·        মাথা কাটা পড়লেও তেলাপোকা বেঁচে থাকে কয়েক সপ্তাহ!!

·        উড়ার সময় বাদুড় সবসময় বামদিকে মোড় নেয়, কখনো ডানদিকে যায় না।

·        কাঠবিড়ালীরা পিছু হটতে পারে না। মানে তারা পেছন দিকে যেতে চাইলেও পুরো উল্টা ঘুরে তারপর ওদেরকে পিছন দিকে যেতে হয়।

·        স্টার ফিশ বা তারা মাছের কোন মগজ নেই; মগজের বদলে এক ধরনের স্নায়ুতন্ত্রের মাধ্যমেই তারা তাদের যাবতীয় কাজ করে থাকে। { তারা মাছ কোন মাছ নয়; পানির নিছে থাকে বলেই তাদেরকে স্টার ফিশ বা তারা মাছ বলা হয়}

·        মানুষের হৃদপিণ্ড প্রায় ১০০,০০০ বার স্পন্দিত হয়।

·        শিকারের কারণে বিলুপ্ত হবার প্রায় ১০০ বছর পর ১৫০৭ সালে ডোডো আবিষ্কার হয়।

·        সম্পূর্ণ শরীর ঘুরে আসতে একটি রক্ত কোষের ৬০ সেকেন্ডের মতো সময় লাগে।

·        একজন পুরুষ দেহে এক সেকেন্ডে প্রায় ১০০০ কোষ শুক্র তৈরি হয়, প্রায় ৮৬০০০০০০ এক দিনে।

·        ইলেক্ট্রিক ঈল মাছ প্রায় ৬৫০ ভোল্ট শক দিতে পারে।

·        এযাবৎকালের সবচেয়ে উচুতম গাছটি হল একটি অস্ট্রেলিয়ান ইউক্যালিপটাস গাছ, যার উচ্চতা ৪৩৫ ফুটের মত।

·        প্রতি সেকেন্ডে প্রায় ১০০ বজ্রপাত পৃথিবীতে হয়ে থাকে।

·        পৃথিবীতে বছরে প্রায় ১০০০০০০ এরও বেশি ভূমিকম্প হয়ে থাকে।

·        পৃথিবী যদিও নিজ অক্ষে ঘণ্টায় ১০০০ মাইল বেগে ঘোরে, কিন্তু অবিশ্বাস্য গতিতে সামনের দিকে এগিয়ে চলে, ঘণ্টায় প্রায় ৬৭০০০ মাইল বেগে।

·        প্রতিদিন মহিলারা গড়ে ৭০০০ বাক্য বলে থাকে আর পুরুষরা বলে থাকে ২০০০ বাক্য।

·        মানব মস্তিষ্ক শরীরের আয়তনের মাত্র ২% হলেও এর শক্তি চাহিদা অনেক; মোট শক্তির ২০%।

·        একটা নতুন মডেলের কম্পিউটার  একটা .১ গ্রাম ওজনের গোল্ডফিসের মস্তিষ্কের সমানও কাজ করতে সক্ষম নয়।

·        আমাদের পৃথিবীতে ৯৫% প্রাণীই একটা মুরগীর ডিমের চেয়েও ছোট।

·        পৃথিবীতে সকল স্তন্যপায়ী প্রাণীদের বাচ্চারাই লাফালাফি করে থাকে। ব্যতিক্রম শুধু হাতিদের বেলাতে। কারন হচ্ছে শুধু হাতিরাই লাফাতে পারে না।

·        পৃথিবীর বহু অঞ্চলে নানা প্রজাতির পাখির দল গ্রীষ্মের শেষে আরও উষ্ম অঞ্চলের দিকে উড়ে যায়। পরের বসন্তকালে আবার তারা ঠিক নিয়মমাফিক জায়গায় ফিরেও আসে। এরা বছরে প্রায় ২০,০০০(বিশ হাজার) মাইল পথ পাড়ি দেয়। এদেরকে বলে যাযাবর পাখি বা মাইগ্রেটরী পাখি।

·        আপনার শরীরে যে পরিমান কার্বন আছে তা দিয়ে ৯০০০ পেন্সিল বানানো যাবে!!

·        সোনা অনেক দুর্লভ!! দাম তো আকাশচুম্বী!! কিন্তু আপনি কি জানেন পৃথিবীতে যে পরিমান সোনা আছে(স্থলভাগ এবং জলভাগ মিলিয়ে) তা দিয়ে সম্পূর্ণ পৃথিবী ঢেকে দিলে(শুধু স্থলভাগ) হাঁটু পরিমান উচ্চতা হবে!!

·        হেঁটে হেঁটে সূর্যে যেতে চান?? ২০০০ বছর সময় লাগবে!! হাঁটতে হবে মিনিটে ৯০-১০০ কদম গতিতে!!

·        একটা মানুষের শরীরের সবটুকু রক্ত খেয়ে ফেলতে কয়টি মশার প্রয়োজন জানেন?? ,২০০,০০০!!

·        মাধ্যাকর্ষণ শক্তির কারনে, চাঁদ যখন ঠিক মাথার উপরে থাকে তখন পৃথিবীতে উপস্থিত সকল বস্তুর ওজনই খানিকটা কমে যায়!! (খুবই সামান্য)

·        হাসার জন্য ব্রেন এর পাঁচটি অংশের কার্যক্রম এর প্রয়োজন হয়!! তাই হাসাটা এত সহজ নয়!!

·        একজন সুস্থ স্বাভাবিক একজন মানুষের পক্ষে তার নিজের কনুই চাটা একেবারেই অসম্ভব!!

·        আমরা তো খাবার খেয়েই ভাবি কাজ শেষ!! এ খাবার পুরোপুরি হজম করতে পেটের কতক্ষণ সময় লাগে জানেন?? প্রায় সাড়ে পাঁচ ঘণ্টা!!

·         নীল চোখের মানুষ অন্ধকারে ভালো দেখতে পায়!!

·        "গ্রহরাজ" হিসেবে পরিচিত "বৃহস্পতি" গ্রহটি পৃথিবীর চেয়ে ১৩০০ গুন বড়!!

·        একজন মানব শিশু হাঁটা শেখার পূর্বে গড়ে ১৫০ কিলোমিটারের মতো হামাগুড়ি দেয়!!

·        বিশ্বে যে পরিমাণ অপরাধী ধরা পড়ে তার ৮০% ই হলো পুরুষ!! (মেয়েরা তাহলে চালাক অপরাধী!! হুমমমম!! অথবা তারা অপরাধই কম করে )


·        একজন নরমাল মানুষ এক বছরে ১৪৬০টিরও বেশি স্বপ্ন দেখেন!! (আমার তো একটাও মনে থাকে না!! :O)

·        চিতা হল স্থল-প্রাণীদের মধ্যে সবচেয়ে দ্রুতগতির প্রাণী!! এটা ঘণ্টায় ১২০ কিলোমিটার গতিতে দৌড়াতে পারে!! আর মাত্র ৩ সেকেন্ডে এটা শূন্য থেকে ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটার গতি তুলতে পারে যা প্রাণিজগতে অদ্বিতীয়!! (উসাইন বোল্ট!?) কিন্তু চিতারা এই দ্রুত গতিতে ২০ সেকেন্ডের বেশী দৌড়াতে পারে না কারণ এতে তারা হার্টফেল করে মারা যেতে পারে!! তবে তারা খুব দ্রুতগতিতে এই ২০ সেকেন্ডেই শিকার ধরে ফেলে!! (খাইছে!! ইনি পিছনে ছুটলে তো আয়ু মাত্র ২০ সেকেন্ড!!)

·        কেউ যখন ঘুম এর মধ্যে নাক ডাকে এর অর্থ হচ্ছে সে স্বপ্ন দেখছে না!! (যারা জেগে আছে তাদের যে ঘ্যানর ঘ্যাঙ শুনতে হয়, তার কি হবে!?)

·        আপনি যদি ৬০ মাইল প্রতি ঘণ্টা বেগে একটানা ১৭৬ বছর গাড়ি চালান তাহলে আপনি পৃথিবী থেকে সূর্যের দূরত্বের সমান দূরত্ব অতিক্রম করতে সক্ষম হবেন!! (তেল খরচ দিবো কেডা?? ট্রাই মারতে পারতাম!!)



·        বলুন তো, পানি ছাড়া কে বেশি দিন বেঁচে থাকবে?? মরুর জাহাজ খ্যাত উট?? নাকি বই কাটার ওস্তাদ ইঁদুর?? জানি অনেকেই ভুল করবেন।। কিন্তু সত্যি হলো পানি ছাড়া একটি ইঁদুর, একটি উটের চেয়ে বেশীদিন বেঁচে থাকে!!

·         পৃথিবীর মোট জীবিত প্রানির ৮৫ ভাগই পানিতে বাস করে (সমুদ্রে)!!

·         কানাডা একটি ইন্ডিয়ান শব্দ, যার মানে হলো “Big Village (বড় গ্রাম)”!!

·         কানাডায় যেই পরিমাণ লেক আছে, সমগ্র পৃথিবীতে একত্রেও সেই পরিমাণ লেক নেই।

·        একটি তিমি মাছের হৃৎপিণ্ড মিনিটে ৯ বার স্পন্দিত হয়

·         আলবার্ট আইনস্টাইন ১৯৫২ সালে ইসরাইলের প্রেসিডেন্ট হবার অফার পান!!
·        কলা এবং সবুজ আপেল ওজন কমাতে সাহায্য করে!!

·         সূর্য পৃথিবী থেকে ৩৩০৩৩০ গুন বড়!!

·         সিংহের গর্জন প্রায় ৫ মাইল দূর থেকেও শোনা যায়!!

·        অস্ট্রেলিয়াতে এক ধরনের কেঁচো পাওয়া যায় যা লম্বায় ১০ ফুট পর্যন্ত হতে পারে!!

·         ৩০ বছরের পর থেকে মানুষের উচ্চতা আস্তে আস্তে কমতে থাকে!! তবে সেই প্রক্রিয়া খুবই ধীর গতির!!



পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার বা কমেন্ট করতে ভুলবেন না কিন্তু।